কবিতাসাহিত্য

যে সময় কখনো আসেনি

অভিমান বোঝার মত সময় হয়নি তাই,
এই মুখোশ পরা শহরে এক বুক হতাশা জমাই।
যে আলো জ্বলে বুকের ভেতরে ধ্বিকি ধ্বিকি
ঘর ছাড়া মনেরে পথের মাঝে বাঁধতে পারে কি?

আমি ভিড়ের মাঝে মানুষ খুঁজে যাই
চোখ বুঝে আমি একটা মানুষ শুধু চাই,
এই শহর ভর্তি রক্ত-মাংসের শরীরে সব আছে মন নাই,
আমি সেই মনের ভেতরের হৃদপিন্ড খুঁজি ভাই।

শহরে আজ দেখি আলোর ঝলকানি আর সাদা বাতি
আমার চোখ খোঁজে সোডিয়ামের ম্লান হাতছানি।
আমি নব্বই কিংবা আশির দশকে ফিরে যাই-
একটাকার দেশলাই আর কবির আঙ্গুলের ফাঁকে ছাই।

আমি বুক ভর্তি অভিমান নিয়ে এই শহরের মুখোশদের ভালোবেসে যাই।

ভীষন বোকা, অপদার্থ আর ভুল সময়ে এই বেঁচে থাকা
আমার এই ধোঁয়া, ধুলি আর মেকি হাসির কুয়াশা।
আমি চোখ ভর্তির শহরে কানারে খুঁজে যাই
যার কাছে মন আছে, আমার তো হৃদপিন্ড নাই!

মন্তব্য