তুমি জেগে গেলেই 1

তুমি ঘুম থেকে উঠলেই, আকাশটা মেঘলা
তুমি চোখ খুললেই মনভার রিমঝিম
তুমি আড়মোড়া ভাঙলেই ঝড়ো বাতাস –
চারিদিক মেঘকালো বজ্রের হুঙ্কার।

তোমার চাহনিতে সে ঝড় চলে অবিরত দিগ্বিদিক
তুমি যাই বলো, আমি মেনে নিই ঠিক ঠিক।

তবু কেন মুখ কালো ভার তোমার?
তোমার জন্য আমি প্রকৃতি সেজেছি
ঝড়ে নুয়ে পড়েছি বহুবার,
তুবু কেন কান্নাই হতে হবে তোমার হাতিয়ার?

জানোতো, দিন শেষে যেমন রাত আসে,
বর্ষনের পরে সূর্য হাসে-
তেমনি ঝড়েরও শেষ আছে –
জীবন একটা না একটা রাস্তা খুঁজেই নেবে,
প্রকৃতি শুন্যস্থান কখনো রাখে না।
তুমি আমার জীবন হও, সূর্য মাখা হাসিমুখ হও,
নয়ত জীবন অন্য রাস্তা ঠিকই খুঁজে নেবে।

 

 

লেখালেখির শুরু সেই স্কুলে থাকতেই। তখন বিভিন্ন দেয়ালিকা আর কিশোর পত্রিকায় নিয়মিত লিখতাম। এরপর দীর্ঘ বিরতি দিয়ে আবার ফেরা লেখালেখিতে। মূদ্রনে ভীষন অনীহা আমার। প্রযুক্তি সেই সুবিধা দিয়েছে আমাকে। প্রযুক্তি প্রেমিক বলে আমার লেখায় বারবার চলে আসে এই বিষয়গুলো। আমার সাহিত্য ভাবনা, ঘোরাঘুরি আর কিছু ছবি নিয়ে। একদম সাদামাটা একজন মানুষের মনের কোনে কি উঁকি দেয়?

Leave a Reply