Thadam (2019) এক অনবদ্য ক্রাইম থ্রিলার

Thadam (2019) তামিল মুভি রিভিউ
  • গল্প
  • অভিনয়
  • গ্রাফিক্স
  • চরিত্র
  • মিউজিক
  • সিনেমেটোগ্রাফি
4.3

Thadam (2019) - ক্রাইম থ্রিলার

সাউথের মুভির প্রেমে পড়ে যাচ্ছি দিন দিন। বলিউড যেখানে নাচ-গান আর নায়িকার নাভি প্রদর্শন নিয়ে ব্যাস্ত থাকে সারা বছর, সেখানে তামিল আর তেলেগুতে একের পর এক বের হচ্ছে চিন্তা-ভাবনার খোরাক যোগানো চলচ্চিত্র।

এক তরুনের মৃত্যুর পরে পুলিশ খুনির খোঁজ করতে গিয়ে ধাঁধায় পড়ে যায়। একই রকম দেখতে দুই জন। খুনটা দুজনের কেউ একজন করেছে কিন্তু কে করেছে সেটাই বের করতে হবে! নয়ত আদালতে নির্দোষ একজন সাজা পেয়ে যাবে।

শেষ পর্যন্ত কি হয়, অপরাধীকে কি ধরতে পারে পুলিশ?

পরিচালক: Magizh Thirumeni
গল্পঃ Magizh Thirumeni (সংলাপ), Magizh Thirumeni
অভিনয়ঃ Arun Vijay, Tanya Hope, Smruthi Venkat

Thadam (2019) এক অনবদ্য ক্রাইম থ্রিলার 1

ক্রাইম থ্রিলার মুভি কার না পছন্দ? খুন, রহস্য, খুনের পিছনে কি মোটিভ এগুলোর এক জান্তব দৃশ্যায়ন দেখা যায় স্ক্রিনে।

Thadam (2019) মুভির শুরুতে জমতে একটু সময় নিলেও ছবির বিশ মিনিটের মধ্যে দর্শক হিসেবে ডুবে যাবেন আপনি থ্রিলারের জগতে।

মুভির গল্প বেশ বড় আঙ্গিকেই পাক খেয়ে খেয়ে শেষ হয়েছে। শুরুর দিকে একটা সাধারন খুনের ঘটনা থাকলেও ধীরে ধীরে সেটা গভীর থেকে গভীরে যেতে থাকে।

নায়িকা প্রধান নয়, বরং এটা গল্প প্রধান ছবি। ছবিতে একই রকম দেখতে জমজ দুই ভাইয়ের একজন প্রেমিকার খুনের বদলা নিতে খুন করে। কিন্তু তার জমজ ভাই তাকে বাঁচানোর জন্য ইচ্ছাকৃত ভাবে পুলিশে ধরা দেয়।

এরপর পুলিশ ধাঁধায় পড়ে যায় আসল খুনিকে সেটা আদালতের সামনে উপস্থাপন করতে।

আর্জুন ভিজয় মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন এবং শুধু মাত্র তার অভিনয় নৈপুন্যের কারনেই আমার কাছে একবারের জন্যও মুভি বোরিং লাগেনি।

পুলিশ হিসেবে নারী চরিত্রের Vidya Pradeep কে প্রথম দিকে বেশ ম্লান লাগলেও গল্প যত আগায় ততই তার ভুমিকা ফুটে ওঠে।

যদি গল্প আগে থেকে না জেনে থাকেন আপনি তবে ছবির শেষ পর্যন্ত না দেখে চেয়ার ছাড়তে পারবেন না।

আদতে আইনের ফাঁক গলে বের হয়ে যাওয়া এক অপরাধীর গল্প। যদিও গল্প চিত্রায়নের নৈপুণ্যে ছবির একদন শেষে গিয়েও এই খুনকে জাস্টিফাই করার একটা চেষ্টা করা হয়েছে।

কিছু জায়গায় গিয়ে ছবিটা থ্রিলার এর গল্প বলার স্টাইল থেকে সরে গিয়েছে। যদি আগে থেকেই দর্শক জেনে যায় খুনি কে তবে সেই থ্রিলার আসলেই খুব বেশি আগায় না। তারপরেও এই ছবিতে গল্প উপস্থাপনের ভঙ্গিমার কারনে টুইস্ট এবং থ্রিল ধরে রাখতে পেরেছেন পরিচালক।

এক কথায় ছবিটি উপভোগ্য।

Leave a Reply