Chhichhore (2019) - মন ভালো করে দেয়া এক ছবি
  • গল্প
  • অভিনয়
  • গ্রাফিক্স
  • চরিত্র
  • মিউজিক
  • সিনেমেটোগ্রাফি
4.8

Chhichhore (2019) - জীবনের গল্প বলে যাওয়া চলচ্চিত্র

এই ছবিটা সুন্দর, অসম্ভব সুন্দর। শুধু অভিনয় দিয়ে কিছু ছবি বিচার করলে চলে না, কিংবা ক্যামেরার কাজ।
 
কিছু ছবি নৈতিক ভাবে সবার দেখা দরকার। বাধ্যতামূলক ভাবে ক্লাস্রুমে, অফিসে কিংবা পরীক্ষার আগে।
 
পরিবর্তন একদিনে আসে না, একবারে আসে না, কিন্তু আসে…। চিন্তায় … চেতানায়… প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে।

নামঃ Chhichhore
ধরন: ড্রামা
পরিচালকঃ নিতেশ তিওয়ারী
কাহিনীঃ নিতেশ তিওয়ারী, পিউস গুপ্তা, নিখিল মেহরোত্রা
মুক্তিঃ সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৯

কিছু মুভির গল্প কথা বলে। অভিনয়, লোকেশন, মিউজিক এগুলা খুব একটা নজরে পড়ে না প্রথমবার। Chhichhore এই ক্যাটাগরির মুভি।

নাম দেখে প্রথমে আমিও বুঝতে পারিনি ছবি আসলে কি বিষয় নিয়ে করা হয়েছে। কিন্তু মাত্র ৫ মিনিটের মাঝে আপনি ডুবে যাবেন আপনার কৈশোর আর যৌবনে। হোস্টেল লাইফের গল্প আছে, প্রেম আছে, বন্ধুত্ব আছে আর আছে জীবনের গল্প। জীবন থেকে পাঠ নেয়া এক ঝাঁক তরুনের গল্প।

নাহ… এই মুভির কাহিনী সংক্ষেপ আমি বলে দিচ্ছি না। দেখে নেয়ার দায়িত্ব আপনার নিজের। তবে এটা বলে রাখি যদি ছবি না দেখে থাকেন আর এই ছবির গল্পের কোন না কোন অংশের সাথে আপনার জীবনের গল্প মিলে না যায়, তবে আপনি নেহাতই গাড়ল প্রকৃতির মানুষ।

দঙ্গল ক্ষ্যাত পরিচালকের এটা আরেকটা কালজয়ী মুভি। এরকম মুভি আমাদের প্রচুর দরকার। কারন মানসিকতা একদিনে পরিবর্তন হয় না। আমাদের আগের প্রজন্ম যেখানে মুখ থুবড়ে পড়েছিল, বাচ্চাদের ব্যাস্ত রেখেছিল পাঠ্যবইয়ে, আমরা যেন সেই একই ভুল না করি।

পরীক্ষা, ক্লাস, চাকুরী এসব করতে করতে জীবনের শেষে এসে সবাই আফসোস করে জীবনটাই উপভোগ করা হল না।

দেখা হল না প্রিয়জনের মনের ভেতর উঁকি মেরে – কি গহীন অভিমান সেখানে খেলা করে!

লেখালেখির শুরু সেই স্কুলে থাকতেই। তখন বিভিন্ন দেয়ালিকা আর কিশোর পত্রিকায় নিয়মিত লিখতাম। এরপর দীর্ঘ বিরতি দিয়ে আবার ফেরা লেখালেখিতে। মূদ্রনে ভীষন অনীহা আমার। প্রযুক্তি সেই সুবিধা দিয়েছে আমাকে। প্রযুক্তি প্রেমিক বলে আমার লেখায় বারবার চলে আসে এই বিষয়গুলো। আমার সাহিত্য ভাবনা, ঘোরাঘুরি আর কিছু ছবি নিয়ে। একদম সাদামাটা একজন মানুষের মনের কোনে কি উঁকি দেয়?

Leave a Reply