“অন্য পৃথিবী” – আহসান হাবীব এর বই রিভিউ

"অন্য পৃথিবী" - আহসান হাবীব
  • প্রচ্ছদ
  • ভাষা
  • কাহিনী
  • চরিত্র
3.5

এটা কোন সায়েন্স ফিকশন বই নয়

রম্য গল্প লিখতে লিখতে ক্লান্ত হয়ে বোধহয় একটু সায়েন্স ফিকশন লেখার চেষ্টা করেছেন। বইয়ের প্রচ্ছদ দেখে ধোঁকা খাবেন না। এটা একটা রম্য গল্পের বই। নিজের মূল ধারা থেকে লেখক বের হয়ে আসতে পারেননি।


অন্য পৃথিবী

বইয়ের নামঃ অন্য পৃথিবী
লেখকঃ আহসান হাবীব
প্রকাশ কালঃ বইমেলা ২০১৯
প্রকাশকঃ ফারুক আহমেদ
প্রকাশনঃ প্রিয়মুখ প্রকাশন
পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৭৯
মূল্যঃ দুইশত টাকা

আহসান হাবীবকে নতুন করে পাঠকের সাথে পরিচয় করে দেবার কিছু নেই। আমাদের দেশের বুহুল প্রচারিত রম্য ম্যাগজিন উন্মাদের সম্পাদক, কার্টুনিষ্ট এবং রম্য সাহিত্যিক।

এবারের বইমেলায় আমি প্রথম যে বইটা কিনি সেটা তার “অন্য পৃথিবী” এবং সেই সাথে “ভুত অমনিবাস”। ভুত অমনিবাসের রিভিউ আসছে পরে পড়ে শেষ করে নেই।

অন্য পৃথিবী বইটা বেছে নেবার একটা কারন ছিল বোধহয় বইটার উপরে “সায়েন্স ফিকশন” আর বইয়ের নামের নিচে আহসান হাবীব এই নামটা থাকার কারনে। যারা আমার ব্লগের একটা দুইটা রিভিউ পড়েছেন তারা জানেন আমি কি পরিমানের সায়েন্স ফিকশন ভক্ত।

যদিও এই বই পড়া শেষে আমার মনে হয়েছে এইটা কোন ভাবেই সায়েন্স ফিকশন হতে পারে না।

অবশ্য লেখক ভেতরে ভূমিকা দিতে গিয়ে কিছুটা সাফাই দিয়েই দিয়েছেন যে বইয়ের সব গল্পগুলোই সায়েন্স ফিকশন নয়। সায়েন্স ফিকশন এর ধারে কাছে গিয়ে আবার ফিরে এসেছে মাত্র।

কিন্তু আমি নিশ্চিত কোন কাতারেই আমি এইগুলোকে সায়েন্স ফিকশন এর কাতারে ফেলব না। সায়েন্স ফিকশন হতে হলে একটা গল্পে ফিকশন থাকতে হবে, এমন কিছু সায়েন্টিফিক্যাল লজিক থাকতে হবে যা এখনো প্রমান করা সম্ভব হয়নি, কিন্তু বিজ্ঞান মনস্ক মনকে ভীষন ভাবে নাড়া দিয়ে যাবে।

বইটা কিশোরদের জন্য লেখা, সে হিসেবেও লেখক কিশোরদের মনোভাব বুঝতে হয়ত ব্যার্থ হয়েছেন। এখনকার কিশোরেরা অনেক বেশি স্মার্ট আর বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি নিয়ে তারা আমাদের সময়ের থেকে বেশি জানে। তাই তাদের উদ্দেশ্য করে যদি আমি কিছু লিখি তবে শিশুসুলভ সায়েন্স ফিকশন বই লিখলে লাভ কম।

এই বইয়ের প্রচ্ছদে সায়েন্স ফিকশন লেখাটা একটা ভুল। মাফ করবেন, পাঠক হিসেবে আমি এটুকু বলতেই পারি।

বইয়ে মোট গল্প আছে ১১ টি। যেহেতু ছোট গল্পের বই, তাই কাহিনীর কিছু বলে দিয়ে পাঠকের মজা নষ্ট করব না।

আহসান হাবীব বেশ ভালো রম্য লেখক। তার সারকাজমের একটা বড় অংশ হলো আপনার পরিচিত জনের সাথে গল্পের চরিত্রের মিল খুঁজে পাওয়া। এই বইয়ের সায়েন্স ফিকশন গল্পগুলো বাদ দিলে বাকি গল্প গুলো যেমনঃ স্বপ্ন রহস্য, রাফির প্রাতঃকালীন ব্যায়াম আমার বেশ ভালো লেগেছে।

বিশেষ করে স্বপ্ন রহস্য গল্পটা দিয়ে আসলে একটা বড় উপন্যাস লেখা যায়। এই আইডিয়ার মুভি আমরা হলিউডে দেখিছি

সব থেকে বোগাস গল্প লেগেছে “ভুত” – এটাকে আসলে গল্প কিভাবে বলা হচ্ছে তাও বুঝতে পারছি না।

বইয়ের প্রচ্ছদে আসলে লেখা উচিত ছিল এটি একটি রম্য গল্পের বই, কোনভাবেই সায়েন্স ফিকশন নয়।

Leave a Reply